• বুধবার   ২৯ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৫ ১৪২৯

  • || ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

সর্বশেষ:
হাইটেক পার্ক স্থাপন প্রকল্পের আওতায় কর্মসংস্থান হবে ৩ হাজার রংপুরে ভাষাসৈনিক মতিউর রহমান বসনীয়া আর নেই করোনা রোধে দেশের শিশুদেরও টিকা দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে সরকার মিঠাপুকুরে প্রশাসনের উদ্যোগে ৩০ বছর পর লিজ মুক্ত শালমারা নদী ৫০ বিলিয়ন ডলার ছুঁয়েছে বাংলাদেশের রফতানি

ইউক্রেনের আরেকটি শহর প্রায় অবরুদ্ধ

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৬ মে ২০২২  

ইউক্রেনের সেভেরোদোনেৎস্ক দখলে নিতে ব্যাপক হামলা চালাচ্ছে রুশ সেনারা। শহরটি চারপাশ থেকে রুশ সেনারা ঘিরে ফেলার দাবি করেছে। তবে পূর্ব ইউক্রেনের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা এ দাবি অস্বীকার করে বলেছেন, পূর্বাঞ্চলে ইউক্রেনের সেনাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা একটি এলাকা থেকে গুরুত্বপূর্ণ একটি সংযোগ সড়ক এখনো দখলে নিতে পারেনি রুশ সেনারা। সড়কটি দখলে নিতে পারলে সিভিরোদোনেৎস্কের সঙ্গে ইউক্রেনের অন্য শহরের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে।

সিভিরোদোনেৎস্ক শহরটির উপকণ্ঠে তীব্র লড়াই চলছে। রাশিয়ার অন্যতম লক্ষ্য হলো শহরটি দখল করা। গত মঙ্গলবার রুশ বাহিনীর বোমাবর্ষণে সেখানে ছয়জন নিহত হয়েছেন।

এদিকে সিভিরোদোনেৎস্ক ও তার জমজ শহর লিসিচানৎসক প্রতিরোধে লড়াই অব্যাহত রেখেছে কিয়েভ বাহিনী। বিবিসি বলছে, রুশ সেনারা যদি সিভিরোদোনেৎস্ক থেকে বাখমুটের রাস্তাটি দখল করতে পারে তবে পুরো শহরটিকে ঘিরে ফেলতে সক্ষম হবে তারা।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর তিন মাস পেরিয়ে গেছে। বর্তমানে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চল দনবাস পুরোপুরি দখলের দিকে মনোনিবেশ করছে রুশ সেনারা।  ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের বিচ্ছিন্নতাবাদী অধ্যুষিত স্বঘোষিত প্রজাতন্ত্র লুহানস্ক অঞ্চলে রুশ সেনাদের বিরুদ্ধে বেসামরিক অবকাঠামোর ওপর বোমা হামলার অভিযোগ এনেছেন সেখানকার আঞ্চলিক প্রধান। তিনি বলেন, সিভিরোদোনেৎস্কে ১৫ হাজার বেসামরিক লোক আশ্রয় শিবিরে ঠাঁই নিয়েছেন। গত শুক্রবার লুহানস্কের পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ নেয়ার কাছাকাছি যাওয়ার দাবি করেছিলেন রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু।

এদিকে প্রতিবেশী ইউক্রেনে অভিযান পরিচালনার মধ্যেই সামরিক বাহিনীতে নিয়োগের সর্বোচ্চ বয়সসীমা কমিয়েছে রাশিয়া। বর্তমানে রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর পেশাদার সৈনিক হতে হলে বয়স ১৮ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে হতে হবে। আর বিদেশিদের ক্ষেত্রে লাগবে ১৮ থেকে ৩০ বছর।

গত ২৫ মার্চ রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, যুদ্ধে তাদের এক হাজার ৩৫১ সেনা নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে তিন হাজার ৮২৫ জন। এরপর থেকে ইউক্রেনে অভিযানে সামরিক হতাহতের তথ্য হালনাগাদ করেনি মস্কো।

ইউক্রেনকে নিরস্ত্রিকরণ ও নাৎসিমুক্ত করতে গেল ২৪ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভিযানের ঘোষণা দেন পুতিন। রাজধানী কিয়েভ দখলে ব্যর্থ হওয়ার পর বর্তমানে পূর্ব ইউক্রেনের দোনবাস অঞ্চল ঘিরে হামলা জোরদার করছে মস্কো। লুহানৎসক ও দোনেৎসক মিলে দোনবাস অঞ্চল। সামরিক অভিযান শুরুর আগে অঞ্চল দুটিকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন ভ্লাদিমির পুতিন।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –