• বুধবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

  • || ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

হরিজন সম্প্রদায়ের মানুষ পেল প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২২  

হিলির হাকিমপুর উপজেলার বৈগ্রাম রাস্তার পাশে বটতলার নিচে হরিজনদের পাঁচটি পরিবারের ঘর।   ঘরগুলো দূর থেকে যেন সৌন্দর্য ছড়াচ্ছে।

বুধবার (১৭ নভেম্বর) সকালে ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার পথে চোখে পড়ে লাল টিনের ছাউনির নিচে নতুন ঘরে হরিজন সম্প্রদায়ের পরিবারগুলো অনেকটাই ব্যস্ত সময় পার করছেন তাদের ঘরগুলো সাজিয়ে নিতে।

এ সময় কথা হয় দুই পরিবারের সঙ্গে। তারা জানান, হিলি বাজারের খাসমহল হাটে কয়েক যুগ ধরে তারা বসবাস করে আসছেন। কখনো শেডের নিচে বা রাস্তার পাশে থাকতে হয়েছে এতদিন। কোনোদিন  ভাবতে পারেননি তাদের নিজের বাড়ি হবে।

আরেকজন বলেন, ‘আজ সত্যিকার অর্থে সরকার আমাদের নিজের একটি বাড়ি দিয়েছে। বিশ্বাস করতে পারছি না, এটা স্বপ্নের মতো। আজ যদি বাবা বেঁচে থাকত, কতই-না খুশি হতেন। বেঁচে থাকতে বাবা কতবার চেয়ারম্যান-মেম্বার-ইউএনওর কাছে গিয়েছেন, কেউ আমাদের ঘর দেয়নি। বর্তমান ইউএনও আমাদের সহযোগিতা করে সরকারি ঘর দিয়েছেন, আমরা অনেক খুশি।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর এ আলম বলেন, ‘স্থানীয়দের মাধ্যমে যতদূর জেনেছি, ৪০ বছর ধরে হিলি সীমান্তবর্তী এলাকায় ছড়িয়ে-ছিটিয়ে ছিল বেশকিছু হরিজন সম্প্রদায়ের মানুষ। ছিল না তাদের থাকার মতো জায়গা, সবকিছু মিলে আলো-আঁধারে ছিল এসব সম্প্রদায়ের মানুষের জীবনমান। তবে প্রধানমন্ত্রীর একটি উদ্যোগ পাল্টে দিয়েছে এসব মানুষের জীবনের চিত্র।’

প্রতিটি ঘর ২ লাখ টাকার বেশি ব্যয়ে নির্মিত উন্নত মানের ইট-সিমেন্টের তৈরি বাসস্থান পেয়েছে এসব পরিবার।

৪৫ শতাংশ জমিতে একটি পুকুর পাঁচটি ঘর দেয়া হয়েছে। তারা পুকুরের পানি ব্যবহারের পাশাপাশি পুকুরে তারা মাছ চাষ করতে পারবে।

উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ হারুন বলেন, ‘অনেক দিন থেকে আমাদের পরিকল্পনা ছিল সরকারের কোনো ঘর বরাদ্দ এলে এবার হরিজন সম্প্রদায়কে ঘর দেয়া। সেই ঘরগুলো আমরা তাদের হস্তান্তর করেছি। ঘরগুলো গ্রামীণ পরিবেশে। দূর থেকে দেখলে মনে হবে যেন লাল-সবুজের অপরূপ দৃশ্য।’

আর এসব ঘরে থাকার সুযোগ পেয়ে খুশি হরিজন সম্প্রদায়ের মানুষগুলো।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –