• শুক্রবার   ১৯ আগস্ট ২০২২ ||

  • ভাদ্র ৪ ১৪২৯

  • || ২০ মুহররম ১৪৪৪

সর্বশেষ:
এদেশের মাটিতে সবার সমান অধিকার: প্রধানমন্ত্রী নীলফামারীতে অপহৃত কিশোর উদ্ধার, আটক ৩ দিনের তাপমাত্রা কমবে ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস অর্থনীতির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার সক্ষমতা আছে বাংলাদেশের মেট্রোরেলের স্টেশনের কাজ প্রায় শেষ

নীলফামারীর দুই উপজেলার ১২ ইউনিয়নে উৎসবমুখর পরিবেশে ভোটগ্রহণ শেষ 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৬ ডিসেম্বর ২০২১  

চতুর্থ দফায় নীলফামারীর ডিমলায় ৭টি ও সৈয়দপুর উপজেলায় ৫টি সহ ১২টি ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচনে উৎসব মুখোর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। আজ রবিবার (২৬ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে ১২টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এখন চলছে গণনা।

তীব্র শীতের কারণে শুরুতে কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি কম ছিল। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটারদের ভিড় বাড়তে থাকে। পুরুষের তুলনায় নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিল বেশি।

এদিকে দুপুর দেড়টার দিকে সৈয়দপুর উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের তিন ওয়ার্ডের ভোট কেন্দ্রের বাহিরে গুজব ছড়িয়ে দুই মেম্বার প্রার্থী ও সমর্থকদের মধ্যে দুই দফায় সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে। ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ডাঙ্গাপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের এ ঘটনায় আহতরা হলো মুসা মামুদের (তালা মার্কা) এর কর্মী আল আমিন (২১), মুসা (১৯) ও লাবু (২৩) এবং আতিউল (ফুটবল মার্কা) এর কর্মী জসিম (২৮), রশিদুল (১৮) ও কালা (২৩)।  

প্রত্যদর্শীরা জানান, সকাল থেকেই অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছে। দুপুর আনুমানিক ১ টার দিকে মেম্বার প্রার্থী মুসা মামুদের একজন মহিলা এজেন্ট বুথ থেকে বের হয়ে চিৎকার করে বলেন জাল ভোট দিতে এসে এক মহিলা ধরা পড়লেও প্রশাসন সহযোগীতা না করায় পালিয়ে গেছে।

এমন খবরে উপস্থিত কর্মী সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তারা ভোটের বুথে ঢোকার চেষ্টা করে।  এতে প্রতিপ আতিউরের লোকজনও শোরগোল শুরু করলে উভয়ের মাঝে বাক বিতন্ডা লাগে। এমতাবস্থায় পুলিশ ও আনছাররা লাঠিচার্জে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। ফলে দুই প দুই দিকে সরে যায়।

এর কয়েক মিনিট পরে আবারও হুজুগ উঠে যে আতিউরের লোকজন ভোটের ব্যালট বাক্স ছিনতাই করে নিয়ে যাচ্ছে। এতে আবারও উত্তেজিত হয়ে ছুটে আসে মুসা মামুদের লোকজন। এসময় বাধা দেয় আতিউর প। ফলে কেন্দ্রের বাইরে হাতাহাতি শুরু হয়।

এরই এক পর্যায়ে অতর্কিত বাঁশের লাঠি দিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয় তারা। প্রায় ১ ঘন্টা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষে উপরোল্লিখিতরা গুরুত্বরভাবে জখম হয়। এছাড়াও আরও প্রায় ৩০-৩৫ জন আহত হয়েছেন। পরে খবর পেয়ে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে আইনশৃঙ্খলা রাকারী বাহিনী এসে উপস্থিত হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।
জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, সুষ্ঠু ও শান্তিপুর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এখন গণনা চলছে।

উল্লেখ যে, ডিমলার সাত ইউনিয়নে ৮৮টি কেন্দ্রে ভোটক রয়েছে ৪৪২টি এবং সৈয়দপুরের পাঁচ ইউনিয়নে ৫১টি ভোটকেন্দ্রে ভোটকক্ষ রয়েছে ৩৩৩টি। ডিমলার সাত ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৩৪ জন, সংরতি ওয়ার্ড সদস্য পদে ৯৬ জন এবং সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে ২৫৯ জন ও সৈয়দপুরের পাঁচ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ২৯ জন, সংরতি ওয়ার্ড সদস্য পদে ৬২ জন এবং সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে ১৮২ জন প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। ডিমলা উপজেলার ৭ ইউনিয়নে ১ লাখ ৭ হাজার ৩৩৫জন ভোটার ও  সৈয়দপুর উপজেলার ৫ ইউনিয়নে ১ লাখ ৬২হাজার ৯৯৮জন ভোটার রয়েছে। 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –