• মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৮ ১৪৩১

  • || ১৫ মুহররম ১৪৪৬

সর্বশেষ:
সর্বোচ্চ আদালতের রায়ই আইন হিসেবে গণ্য হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী। ২৫ জুলাই পর্যন্ত এইচএসসির সব পরীক্ষা স্থগিত।

টাইব্রেকারে হেরে কোপা থেকে ব্রাজিলের বিদায়

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৭ জুলাই ২০২৪  

কোপা আমেরিকার চলতি আসরের হাই ভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল ব্রাজিল ও উরুগুয়ে। ফাউলের মেলায় নির্ধারিত সময় কোনো দল গোলের দেখা পায়নি। শেষ পর্যন্ত টাইব্রেকারে সেলেসাওদের কাঁদিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট কেটেছে উরুগুয়ে।

যুক্তরাষ্ট্রের আলিজায়ান্ট স্টেডিয়ামে নির্ধারিত সময়ে ব্রাজিল-উরুগুয়ে দুই দলের লড়াই গোলশূন্য ড্রয়ে শেষ হয়। টাইব্রেকারে ৪-২ ব্যবধানে ম্যাচ জিতে নেয় উরুগুয়ে।

আজ প্রথম টাইব্রেকার নিতে আসেন ফেদে ভালভার্দে। কোনো ভুল করেননি তিনি। বামপ্রান্তে ঝাঁপ দিয়েছিলেন আলিসন বেকারও। কিন্তু বলের নাগাল পাননি। ব্রাজিল প্রথম শটটাই মিস করে, এডার মিলিটাওয়ের শট ফিরিয়ে দেন উরুগুয়ে গোলরক্ষক সার্জিও রকেট।

উরুগুয়ে দ্বিতীয় শটেও সফল হয়। আন্দ্রেস পেরেইরা ব্রাজিলের আশা বাঁচিয়ে রাখেন দ্বিতীয় শট নিতে এসে। তৃতীয় শটেও গোল পায় উরুগুয়ে, ব্রাজিল আবার মিস করে। ফলে অনেকটা ছিটকেই যায় পাঁচ বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

আলিসন উরুগুয়ের চতুর্থ শট ফিরিয়ে ব্রাজিলের আশা বাঁচিয়ে রাখেন। গ্যাব্রিয়েল মার্টিনেল্লিও হতাশ করেননি। কিন্তু পঞ্চম শট নিয়েই ম্যাচের ফল নির্ধারণ করে দেয় উরুগুয়ে। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নেয় ব্রাজিল।

চলতি আসরে খুব একটা ছন্দে নেই ব্রাজিল। তার ওপর দলের সেরা তারকা ভিনিসিয়ুস জুনিয়র কার্ডজনিত নিষেধাজ্ঞায় আজ দলের বাইরে। এ অবস্থায় ম্যাচজুড়ে ভুগেছে সেলেসাওরা। বলার মতো আক্রমণ করতে পারেনি তারা।

অন্যদিকে আসরের শুরু থেকেই দারুণ ছন্দে উরুগুয়ে। আজকের ম্যাচে ফেভারিট তারাই। তবে তারাও স্বাভাবিক খেলা খেলতে পারেনি। বড় কিছু সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে ব্যর্থ নুনেজ-ভালভার্দেরা।

ম্যাচের পুরোটা সময়জুড়ে ছিল ফাউলের ছড়াছড়ি। ৯০ মিনিটে মোট ফাউল হয়েছে ৪১টি। যেখানে উরুগুয়ে করেছে ২৬টি, বাকি ১৫টি করেছেন ব্রাজিলের ফুটবলাররা। বলের দখলে দুই দলই অবশ্য সমানে সমান লড়েছে।


আজ উরুগুয়ে বড় ধাক্কা খেয়েছে ম্যাচের ৩৩তম মিনিটে। ইনজুরিতে মাঠ ছেড়েছেন দলটির রক্ষণের সবচেয়ে বড় ভরসা রোনাল্ড আরাউহো। এছাড়া ৭৪ মিনিটে লাল কার্ড দেখেন উরুগুয়ের নাহিতান নান্দেজ।


১০ জন নিয়ে ম্যাচের বাকি সময় রক্ষণের দিকে নজড় দেয় বেশি। অন্যদিকে একজন বেশি থাকলেও সেই সুবিধা কাজে লাগাতে পারেনি সেলেসাওরা। উল্টো একেরপর এক ফাউলে ম্যাচের সৌন্দর্য নষ্ট করেছে উভয় দল।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –