• শনিবার   ২১ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৯

  • || ১৮ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
বৈশ্বিক সংকট মোকাবেলায় চার দফা প্রস্তাব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনায় এক মাস মৃত্যুহীন বাংলাদেশ বিশ্ব মেডিটেশন দিবস আজ ৪৪তম বিসিএস পরীক্ষা নিয়ে যা জানা গেল রংপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বজ্রসহ বৃষ্টির আভাস

সিনিয়রদের অতিরিক্ত লোভেই বিএনপির এই অধঃপতন

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারি ২০২২  

বিএনপির রাজনৈতিক অধঃপতনের জন্য তৃণমূল নয় বরং কেন্দ্রের দায়িত্বশীল নেতাদের ব্যর্থতাই দায়ী বলে মনে করেন সদ্য বিএনপি থেকে বহিষ্কার হওয়া নেতাকর্মীরা।

তারা মনে করেন, কেন্দ্রীয় নেতাদের খাম-খেয়ালিপনা, পদ-বাণিজ্য, দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহারের কারণে তৃণমূলে অসন্তোষ বাড়ছে। এরপরও তৃণমূল নেতরা কেবল খালেদা জিয়ার মুখের দিকে তাকিয়ে রাজনীতি করছেন। বিএনপির সিনিয়র নেতারা লোভ-লালসা ও প্রভাব বিস্তারের রাজনীতি থেকে বের হতে না পারলে আগামীতে বিএনপি করার কেউ থাকবে না বলেও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তারা।

এ বিষয়ে বিএনপির সিনিয়র ও দায়িত্বশীল এক নেতা জানান, বিএনপি মূলত তৃণমূলের শক্তির উপর নির্ভর করে রাজনীতি করে। আমি যতদূর জানি, তৃণমূল বিএনপির নেতা-কর্মীরা লোভ-লালসা ও পদ-বাণিজ্যের রাজনীতি করেন না। তারা বেগম জিয়ার আদর্শের রাজনীতি করেন। কিন্তু বিএনপির স্থায়ী কমিটি ও নীতি-নির্ধারক কমিটির বেশিরভাগ সদস্যরা তার উল্টো রাজনীতিতে ব্যস্ত। তারা পদ-বাণিজ্য, মনোনয়ন বাণিজ্যসহ নানা অনিয়মে জড়িত। তৃণমূলে যেসব কর্মী রাজনীতি করেন, তারা কিছু চায় না। তাদের লোভ-লালসা নেই। রিজভী আহমেদের মতো কিছু নেতা বিএনপির ক্ষতি করছেন।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির সাধারণ কর্মীরা সবাই ভালো মানুষ। সেই কর্মীরা শুধু একটু ভালোবাসা চায়, একটু সম্মান চায়। এর বেশি কিছু তৃণমূলের কর্মীরা চায় না। কিন্তু কেন্দ্রীয় বিএনপির নেতারা অর্থ চান, তোষামোদি চান। তোষামোদি ও চাটুকারিতা না করতে পারলে বিএনপিতে গুরুত্বপূর্ণ পদ পাওয়া যায় না। এটি চরম সত্য। যার কারণে বিএনপি রাজনীতিতে ক্ষয়িষ্ণু শক্তিতে পরিণত হচ্ছে। তারেক রহমান যদি সত্যিকার অর্থে বিএনপিকে রক্ষা করতে চান তবে চাটুকার, লোভী ও বিভেদ সৃষ্টিকারী নেতাদের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিতে হবে। তা না হলে বিএনপি আগামীতে কর্মীশূন্য হয়ে পড়বে।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –