ব্রেকিং:
রংপুরের নবীগঞ্জ এলাকায় বাসচাপায় অটোরিকশার চারযাত্রী নিহত হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
  • বৃহস্পতিবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১৪ ১৪২৮

  • || ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সর্বশেষ:
বিশ্বসেরা স্থাপত্যের পুরস্কার জিতল বাংলাদেশের হাসপাতাল অপ্রতিরোধ্য গতিতে উন্নয়নের পথে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: প্রধানমন্ত্রী পুলিশের সক্ষমতা বাড়াতে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স সংযোজন হচ্ছে রৌমারীতে স্কুলের দেয়াল ধসে শ্রমিকের মৃত্যু রংপুরে চাঞ্চল্যকর জুয়েল হত্যা মামলায় যুবকের মৃত্যুদণ্ড

বিএনপিতে নিরুপায় খালেদা, তারেকই সর্বসেবা

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ ডিসেম্বর ২০২১  

ছেলে তারেক রহমানের সীমাহীন দুর্নীতি ও বেপরোয়া চলাফেরার কারণে জীবনের অন্তিম মুহূর্তে এসে নিরুপায় হয়ে পড়েছেন এক সময়ে বিএনপির কাণ্ডারি খালেদা জিয়া। তিনি এখন শুধু নামেই বিএনপির চেয়ারপার্সন, আদতে তারেক রহমানই দলের সর্বসেবা।

দলের বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, বর্তমানে বিএনপিতে তারেকপন্থী নেতাকর্মীদের যাচ্ছে সুসময়। তারেকের একান্ত অনুগত এবং বিশ্বস্তরাই দলের মধ্যে আধিপত্য বজায় রেখে চলছেন। 

এ সুযোগে বিএনপির বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তারেকপন্থী নেতারাই নিচ্ছেন প্রায় সব গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত। আর যারা তারেকপন্থী হিসেবে বিবেচিত নন এবং তারেকের আস্থাভাজন নন, তারা সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় থেকে যাচ্ছেন একেবারেই ভূমিকাহীন। 

সূত্র জানায়, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বিএনপির মহাসচিব এবং দলের অনেকের মতে, তারেকের ব্যক্তিগত মুখপাত্রের দায়িত্ব পালন করছেন। তারেক যেভাবে নির্দেশ দেন, সে মোতাবেকই তিনি দল পরিচালনা করেন। আর এটি করতে গিয়ে বিএনপিতে তিনি এখন ব্যাপক সমালোচিত। 

তবে এসব বিষয় মির্জা ফখরুল একেবারেই তোয়াক্কা করছেন না। দলে সমালোচিত হলেও তারেকের আস্থাভাজন হওয়ার কারণে তিনি ক্ষমতাবান এবং দলের স্থায়ী কমিটি বা কেন্দ্রীয় কমিটির বাইরেও সিদ্ধান্ত দিতে পারেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য নজরুল ইসলাম খান। বিএনপিতে তার ভূমিকা বা অবদান কি? এ নিয়ে দলের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা রয়েছে। তবে তারেকের একান্ত অনুগত ব্যক্তি হওয়ায় বিএনপিতে তার অবস্থানও চিরসবুজ। 

মূলত মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং নজরুল ইসলাম খানই বিএনপির স্থায়ী কমিটিতে তারেক জিয়ার দুই প্রতিনিধি, যারা বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় মুখ্য ভূমিকা রাখেন।

এদিকে তারেকপন্থী রুমিন ফারহানা বিএনপিতে হঠাৎ আলোর ঝলকানির মতো। মূলত তারেক জিয়ার পৃষ্ঠপোষকতায় এবং আশীর্বাদে রুমিন ফারহানা মহিলা কোটায় এমপি হয়েছেন। এখন তিনি বিএনপির হুইপও হয়েছেন। বিএনপির অঘোষিত নীতিনির্ধারক হিসেবে রুমিন ফারহানাকে মনে করা হয়। এটি মনে করার পেছনে প্রধান হলো তারেক জিয়ার আনুকূল্য এবং ঘনিষ্ঠতা। আর শুধু তারেকের কারণেই তিনি এখন বিএনপির গুরুত্বপূর্ণ একজন নেতা।

মূলত তারেকপন্থীরাই এখন বিএনপিতে ক্ষমতাবান। দলে কি হচ্ছে, না হচ্ছে তা কেন্দ্রীয় নেতারা না জানলেও তারেকপন্থীরা সবই জানেন। সবকিছু জানার পরও ছেলের সীমাহীন দুর্নীতি ও অনিয়মের কারণে নিরুপায় হয়ে পড়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –