• সোমবার ২০ মে ২০২৪ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ৬ ১৪৩১

  • || ১১ জ্বিলকদ ১৪৪৫

লালমনিরহাট হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৩ মে ২০২৪  

লালমনিরহাটে মজনু হত্যা মামলায় একজনের যাবজ্জীবন ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি শাহাজ উদ্দিন। তিনি জেলার পাটগ্রাম উপজেলার ধবল সূতি গ্রামের বাসিন্দা। এ মামলায় অপর আসামি রহিমা বেগমকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে লালমনিরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মিজানুর রহমান এ রায় দেন।

আদালত ও এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালের ১ আগস্ট লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার ধবলসূতি গ্রামের আলতাফ হোসেনের ছেলে মজনু ইসলামকে ধরলা নদী থেকে পাথর তোলাকে কেন্দ্র করে একই এলাকার শাহাজ উদ্দিন লোহার রড দিয়ে মাথায় আঘাত করে। পরে গুরুতর আহত মজনুকে প্রথমে পাটগ্রাম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য মজনুকে রংপুর মেডিকেল কলেজ নেওয়ার পথে মারা যান।

এ ঘটনায় নিহতের বাবা আলতাফ হোসেন বাদী হয়ে পাটগ্রাম থানায় মামলা করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে আদালতে চার্জশিট দাখিল করলে আদালত মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে আসামি শাহাজ উদ্দিনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক মাস কারাদণ্ডের আদেশ দেন। মামলার অপর আসামি রহিমা বেগমকে খালাস দেন আদালত।

এ রায়ে নিহত ভাই মজিদুল ইসলাম বলেন, ২০২০ সালে পাথর তোলাকে কেন্দ্র করে রড দিয়ে মাথায় পিটিয়ে আমার ভাই মজনুকে হত্যা করেছে শাহাজ উদ্দিন। দীর্ঘদিন পর আজ আদালত রায় দিয়েছে। আমরা ন্যায় বিচার পেয়েছি।

লালমনিরহাট জেলা দায়রা ও জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আকমল হোসেন এ রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, আদালত উভয় শুনানি শেষে আসামি শাহাজের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –