• শনিবার   ০১ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৫ ১৪২৯

  • || ০৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
ধর্ম নিরপেক্ষতা সমুন্নত রাখতে শেখ হাসিনাই `একমাত্র ভরসা’- ইন্ডিয়া টুডে আপাতত অফিস সময়ে কোনো পরিবর্তন আনা হচ্ছে না সুশাসন প্রতিষ্ঠায় প্রয়োজন শুদ্ধাচারের প্রয়োগ: মন্ত্রিপরিষদ সচিব শিশুরাই উন্নত বাংলাদেশ গড়ার মূল কারিগর: প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন দলগতভাবে বিএনপিকে প্রতিহত করা হবে: জাহাঙ্গীর কবির নানক

পাটগ্রামে দুই কিলোমিটার হেঁটে ভোট দিলেন ৯০ বছরের আছিয়া

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৫ জুন ২০২২  

৯০ বছর বয়সী আছিয়া খাতুন বয়সের ভারে কুঁজো হয়ে পড়েছেন। ঠিক মতো হাঁটাচলাও করতে পারেন না। তবু ভোটের আমেজে ঘরে বসে থাকেননি। কুঁজো অবস্থায় দুই কিলোমিটার হেঁটে এসে ইউপি নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন। বুধবার সপ্তম ধাপের ইউপি নির্বাচনে লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বাউরা ইউপির সফিরহাট এলাকার রসুলপুর আব্দার হোসেন বসুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ দৃশ্যের দেখা মেলে। 
 
আছিয়া খাতুন প্রায় দুই কিলোমিটার একা একা কুঁজো অবস্থায় হেঁটে এসে ইভিএমে ভোট দেন।

জন্মের সালটা কোনো রকম মনে থাকলেও মাস বা তারিখটা মনে নেই। তার জন্ম ১৯৩২ সালে। বাড়ি লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বাউরা ইউপির ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সফিরহাট রসুলপুর গ্রামে।

আছিয়া খাতুন জানান, ‘ভোটার হওয়ার পর থেকে একবারও ভোট দেওয়া বাদ যায়নি তার, শুধু ২০১৮ সাল ছাড়া। সেবার ভোট দিতে গিয়ে জানতে পারেন তার ভোট কেউ দিয়ে দিয়েছে। তাই সেবার আর ভোট দেয়া হয় নি। বয়স হয়েছে, শারীরিক নানা জটিলতায় বিছানা থেকে উঠতে পারেন না। শরীরে আর আগের মতো শক্তি নেই। বয়সের ভারে শরীর হেলে গেছে।’ 

তিনি আরো জানান, ‘ভোট এলেই যেন তিনি সুস্থ হয়ে যান। তখন শরীরে যতো সমস্যাই থাক না কেন? সেই সমস্যা আর সমস্যা মনে হয় না। তাই শরীর হেলে পড়া অবস্থায় হেঁটে ভোট দিতে এলেন। এসে দেখেন মেশিনের ভোট। আর এবারই প্রথম মেশিনের মাধ্যমে ভোট দিয়েছেন।

তিনি জানান, তার তিন ছেলে দুই মেয়ের মধ্যে তিন ছেলেই মানসিক প্রতিবন্ধী। বড় দুই ছেলে মারা গেছে, মানুসিক প্রতিবন্ধী হওয়ায় ছোট ছেলেও বিভিন্ন হাট বাজারে ঘুরে ঘুরে বেড়ায়। দুই মেয়ের বিয়ে হয়ে গেছে। বড় মেয়ে ঢাকায় থাকে আর ছোট মেয়ে বাড়ির পাশেই বিয়ে হওয়ায় সেই একটু দেখাশুনা করে।

নির্বাচনে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী সুনিল কুমার সেন(ভ্যান প্রতীক)) বলেন, ‘নির্বাচন হবে শোনার পর থেকেই ভোট দেওয়ার জন্য ব্যাকুল হয়ে আছেন তিনি। তাই তিনি অসুস্থ থাকার পড়েও কুঁজো অবস্থায় প্রায় দুই কিলোমিটার একাই হেঁটে ভোট কেন্দ্রে আসেন ভোট দিতে। আর এবার প্রথম মেশিনে ভোট দিতে পেরে তিনি খুবই খুশি।

লালমনিরহাট জেলা নির্বাচন অফিসার মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, ‘সকাল থেকে শান্তিপূর্ণ পরিবেশের মধ্য দিয়ে পাটগ্রাম উপজেলার এই বাউরা ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে। নির্বাচনে প্রতিটা কেন্দ্রে ইভিএম মেশিন দিয়ে ভোট গ্রহন চলছে। 

উল্লেখ্য, বাউরা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৭ জন, সদস্য পদে ৩৭ জন ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১৪জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এই ইউপিতে মোট ভোটার সংখ্যা ২১ হাজার ৯৯৯ জন।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –