• রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ভেজা চুল আঁচড়ানো ভালো নাকি খারাপ?

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৩ মার্চ ২০২৩  

 
ভেজা চুল আঁচড়ানোর অভ্যাস আছে? থাকলে জেনে নিন, চুলের ভালো করছেন নাকি ক্ষতি করছেন। চুলের যত্ন নেয়ার জন্যে অনেক দামি প্রোডাক্টই নিশ্চয়ই ব্যবহার করে থাকেন। যথেষ্ট যত্ন করেন। হেয়ার কেয়ার রুটিন মেনে চললেও দেখেন, চুল পড়া যেন কিছুতেই কমছে না। চুল দুর্বল হয়ে যাচ্ছে। সহজে ভেঙে যাচ্ছে। কেন এমন হয়?

ভেজা চুল আঁচড়ালে কী হয়: ভেজা চুল মান্য টান পড়লেই উঠে আসতে পারে। তাই চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ালে যে আরো বড় ক্ষতি হতে পারে, তা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন। ভিজে অবস্থায় কখনো চুলে চিরুনি দেওয়া উচিত নয়। এতে ক্ষতির আশঙ্কা বাড়ে। শুধুই যে চুলের গোড়ায় টান পড়ে, এমন কিন্তু নয়, বরং চুল দুর্বল হওয়ার কারণে মাঝখান থেকেও ভেঙে যেতে পারে। তাই এই কাজটি করবেন না।

কেন ভেজা চুল আঁচড়ানো উচিত নয়: ভেজা চুল খুব দুর্বল থাকে। চুলের গোড়াও দুর্বল হয়ে থাকে। এই সময়ে আপনি যদি চুলে চিরুনি দিয়ে আঁচড়াতে যান, তবে চুল পড়ার সম্ভাবনা থাকে অনেক বেশি। চুলে হাইড্রোজেন বন্ড থাকে যা ভিজে অবস্থায় সাময়িক ভাবে ভেঙে যায়। এই কারণেই, ভিজে চুল আরও দুর্বল হয়। ভেজা চুল ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কাও বেশি থাকে। যদি জোরে জোরে টেনে ভিজে চুল আঁচড়াতে যান, তবে এটি আগের শেপে ফিরে নাও আসতে পারে।

সবার জন্যেই কী একই নিয়ম: যাদের চুল সোজা কিংবা ওয়েভি, তারা এই নিয়মই মেনে চলুন। উপকার পাবেন। কিন্তু কোঁকড়া চুলে নিয়ম সামান্য আলাদা। কোঁকড়া চুল ভিজে অবস্থায় ঠিকঠাক ম্যানেজ করা সম্ভব হয়। তাই কোঁকড়া চুল আঁচড়ানোর পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা। তবে এটাও খেয়াল রাখতে হয় যে, চুলের শেপে বা কার্ল প্যাটার্নে যেন কোনো প্রভাব না পড়ে। শুকিয়ে যাওয়ার পর আঁচড়ালে চুল আরো বেশি রুক্ষ হয়ে যেতে পারে। তবে শুকনো হওয়ার পরেও আপনি চুল ব্রাশ করতে পারেন।

ভেজা চুল চিরুনি দিতেই হলে কী নিয়ম মানতে হবে: মোটা দাড়ার চিরুনি নিতে হবে। কার্বন ফাইবারের চিরুনি বা প্যাডেল ব্রাশ নিলেই বেশি ভালো হয়। সরু দাড়ার চিরুনি দিয়ে কখনও ভিজে চুল আঁচড়াবেন না। এই সময়ে চুলের জট ছাড়িয়ে নিতে পারেন। যেটা মোটা দাড়ার চিরুনি দিয়েই করা সম্ভব।

খেয়াল রাখতে হবে এদিকটাও: প্রথমে হাতের আঙুলের সাহায্যে ধীরে ধীরে চুলের জট ছাড়িয়ে নিন। সিরাম ব্যবহার করুন। এবার একটি বড় দাড়ার চিরুনি নিন। আস্তে আস্তে চুলে চিরুনি চালান। জট ছাড়িয়ে নিন। তারপর শুকনো হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। তবে সবশেষে এটাই খেয়াল রাখুন যে, ভেজা চুল না আঁচড়ানোই ভালো। তার জন্যে যদি যথেষ্ট সময় থাকে, তবে তাই করুন।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –