• বুধবার   ২০ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৪ ১৪২৮

  • || ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
পীরগঞ্জের জেলেপল্লীতে আগুন: ফেসবুকে পোস্ট দেওয়া সেই যুবক গ্রেফতার সারাদেশে আ’লীগের ‘সম্প্রীতি সমাবেশ-শান্তি শোভাযাত্রা’ কর্মসূচি সেবা খাতের আয় দেশে আনার পদ্ধতি আরো সহজ করলো কেন্দ্রীয় ব্যাংক বেশি ফলন, বন্যাসহনীয় আগাম আমন বীনা-১১ চাষে ঝুঁকছেন কৃষক সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম মনিটর করছে পুলিশ, ‍গুজব ছড়ালেই ব্যবস্থা

লিকার চায়ের হাজারো উপকারিতা   

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১  

সকালে এক কাপ ধোঁয়া উঠানো চা সারাদিনের কাজ করার শক্তি যোগায়। অনেকেই নিজেকে চাঙা রাখতে দিনে একাধিকবার চা পান করে থাকেন। বলা হয়, বিশ্বজুড়ে যেসব পানীয় জনপ্রিয় তার মধ্যে অন্যতম হল চা।

চা যে কেবল শরীর ও মন চাঙা করে তলে তা কিন্তু নয়। এটি স্বাস্থ্যের জন্যও অনেক উপকারী। এক্ষেত্রে দুধ-চিনি দিয়ে চা খাওয়ার অভ্যাস বাদ দিতে পারলেই ভালো। কারণ তা শরীরের জন্য মোটেই উপকারী নয়। বরং লিকার চা শরীরের হাজারো উপকার করে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক নিয়মিত ব্ল্যাক টি বা লিকার চা খেলে যেসব উপকারিতা পাওয়া যায়-

>> চায়ের মধ্যে যে ক্যাফেন থাকে তা চুল আর ত্বকের জন্য খুব ভালো। তবে দুধ, চিনি দেওয়া কড়া চা নয়। ত্বক ভালো রাখতে সকালে এক কাপ চিনি ছাড়া ব্ল্যাক টি খান। দিনেও দু'বার খেতে পারেন।

>> হৃৎপিণ্ড ভালো রাখতে সাহায্য করে লিকার চা। নিয়মিত এই চা খেলে হৃদরোগের সমস্যা কমে। এছাড়াও উচ্চ রক্তচাপ, কোলেস্টেরল, ট্রাইগ্লিসারাইড, স্থূলতার মতো সমস্যা থেকেও দূরে থাকা যায়।

>> সব সময় একমনে কাজ করা সম্ভব হয় না। একটা টি ব্রেক কিন্তু সবার জন্যই জরুরি। এতে মন ভালো থাকে। সেই সঙ্গে কাজে শক্তিও পাওয়া যায়। তাই কাজের ফাঁকে কফি নয়, লিকার চা খেতে পারেন। নিয়ম করে চা খেলে কাজও ভালো হবে।

>> কোলেস্টেরল বাড়লে হৃদরোগ, স্ট্রোকের মতো সমস্যার সম্ভাবনা থাকে খুব বেশি। সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, যারা নিয়মিত ব্ল্যাক টি খান তাদের মধ্যে কোলেস্টেরলের সমস্যা অনেক খানিই কমে। সেই সঙ্গে হৃদরোগের ঝুঁকিও কমে।

>> চিনি ছাড়া লিকার চা এবং গ্রিন টি নিয়মিত খেলে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটা কমে। টিউমারের গ্রোথ কম করার ক্ষমতা রয়েছে চায়ের। এছাড়াও ত্বক, স্তন, ফুসফুস ও প্রোস্টেটের ক্যান্সার থেকে বাঁচতে অবশ্যই ব্ল্যাক টি খাওয়ার অভ্যাস করবেন।

>> ব্ল্যাক টি বা লিকার চায়ে মধ্যে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। এটি শরীর থেকে দূষিত পদার্থ বের করে দিতে সাহায্য করে। সেই সঙ্গে শরীর যাতে ঠিকমতো কাজ করতে পারে সেদিকেও খেয়াল রাখে। যাদের বিভিন্ন দীর্ঘমেয়াদি শারীরিক সমস্যা রয়েছে তাদের জন্যও লিকার চা খাওয়া খুব ভালো।

>> চায়ে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরকে নানা সমস্যা থেকে রক্ষা করে। নিয়মিত এই চা পানে ত্বক ভালো থাকে, হজম ভালো হয়। সারাদিনে অন্তত ৩ কাপ চিনি ছাড়া লিকার চা খেতে পারলে তা শরীরের জন্য খুব ভালো হয়। বিশেষ করে দুপুরের খাবার খাওয়ার পর বিকেলে আদা দেওয়া চা প্রতিদিন খাওয়ার অভ্যাস করুন। এতে হজমের সমস্যা কমে যাবে।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –