• শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১১ ১৪৩০

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪৫

রানা প্লাজা ধসে নিহতদের স্বজনরা ন্যায়বিচার চান: প্রধান বিচারপতি

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১০ জুলাই ২০২৩  

 
রানা প্লাজা ধসে সহস্রাধিক মানুষের মৃত্যুর ঘটনায় হওয়া হত্যা মামলায় ভবন মালিক সোহেল রানার জামিন শুনানিতে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেছেন, আমরা যখন বিচার করি তখন আমাদের ভাবতে হয় ঐ ঘটনায় মারা যাওয়া প্রায় ১১শ’ লাশ আমাদের সামনে। তাদের আত্মীয়-স্বজনরাও ন্যায়বিচার চান। তাই এখনই সোহেল রানাকে জামিন দেওয়া যাচ্ছে না।

সোমবার প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বিভাগে সোহেল রানার জামিন বিষয়ে শুনানি হয়।

শুনানির শুরুতে সোহেল রানার আইনজীবী কামরুল ইসলাম জামিন চেয়ে আদালতে বলেন, মাই লর্ড, ১০ বছর ধরে তিনি (সোহেল রানা) কারাগারে আছেন। তাই এখন তাকে জামিন দিন। তখন প্রধান বিচারপতি বলেন, আরো ছয় মাস থাকুক। এরপর দেখা যাবে।

এরপর আপিল বিভাগ সোহেল রানার জামিন বিষয়ে শুনানি ছয় মাসের জন্য মুলতবি (স্ট্যান্ড ওভার) করেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সারওয়ার হোসেন বাপ্পি ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল সাইফুল আলম।

এর আগে গত ৮ মে সোহেল রানাকে হাইকোর্টের দেওয়া জামিন ১০ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত করেন আপিল বিভাগ। ঐদিন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

গত ৬ এপ্রিল এ মামলায় সোহেল রানাকে জামিন দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। ৯ এপ্রিল হাইকোর্টের দেওয়া জামিন স্থগিত করে আপিল বিভাগে পাঠিয়ে দেন চেম্বার আদালত। ফলে রানার মুক্তিও স্থগিত হয়ে যায়। তার আগে গত বছরের মার্চে রানাকে কেন জামিন দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। ঐ রুলকে যথাযথ ঘোষণা করে গত ৬ এপ্রিল তাকে জামিন দেওয়া হয়েছিল।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ২৪ এপ্রিল রানা প্লাজা ধসে প্রায় ১৩শ মানুষের মৃত্যু হয়। যাদের প্রায় সবাই পোশাক কারখানার শ্রমিক ছিলেন। এ ঘটনায় হওয়া হত্যা মামলার প্রধান আসামি ভবন মালিক সোহেল রানা।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –