• শনিবার ২২ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৭ ১৪৩১

  • || ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ঘূর্ণিঝড় রেমাল; আজ সারাদেশে যেখানে যেমন বৃষ্টি হবে

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৮ মে ২০২৪  

ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে রাজধানীসহ সারাদেশে ভারি বৃষ্টি হচ্ছে। আজ মঙ্গলবারও (২৮ মে) এই আবহাওয়া অব্যাহত থাকতে পারে। ফলে আজ সারাদিন বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্যমতে, সোমবার (২৭ মে) সারারাত চট্টগ্রাম বিভাগের সব জেলায় ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে। বিশেষ করে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, রাঙ্গামাটি, বান্দরবান, ও খাগড়াছড়ি জেলায় ব্যাপক বৃষ্টি ও তীব্র বজ্রপাত অব্যাহত থাকতে পারে।

রাতে সিলেট বিভাগের চার জেলায় ভারি বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে। আগামী ৪৮ ঘণ্টায় সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলায় ৩০০ থেকে ৫০০ মিলিমিটার বৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে। ভারতের মেঘালয় রাজ্যের চেরাপুঞ্জিতে ১০০০ মিলিমিটারের বেশি বৃষ্টিপাতের শঙ্কার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

মঙ্গলবার থেকে সিলেট বিভাগের নদ-নদীগুলোতে পাহাড়ি ঢল নামার প্রবল আশঙ্কা রয়েছে। ময়মনসিংহ বিভাগের শেরপুর ও নেত্রকোনা জেলায় ভারি বৃষ্টির আশংকা করছে আবহাওয়া অফিস। যা বুধবার সকাল পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলে জানানো হয়েছে। 

ফলে ময়মনসিংহ বিভাগের নদ-নদীগুলোতে পাহাড়ি ঢল নামার প্রবল আশঙ্কা রয়েছে। এছাড়া মঙ্গলবার সারাদিন রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা ও সিলেট বিভাগে ভারি থেকে অতিভারি বৃষ্টি হতে পারে। এসময় খুলনা, বরিশাল ও চট্রগ্রাম বিভাগে বৃষ্টির পরিমাণ কমে আসতে পারে।

আজ সারাদিন ঢাকায় বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে। সোমবার ভোর থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ঢাকায় ১২৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। আবহাওয়া অফিস বলছে, চলতি মৌসুমে ঢাকায় এটাই সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত। আর মধ্যরাত পর্যন্ত এই বৃষ্টি ঝড়ছে।

আবহাওয়া অধিদফতরের ঘূর্ণিঝড় সতর্কীকরণ কেন্দ্রের উপপরিচালক মো. শামীম আহসান সোমবার বিকেলে এক ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড়টি উপকূলে আঘাত হানার পর শক্তি হারিয়ে নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এর একটি অংশ ঢাকাসহ দেশের মধ্যাঞ্চলের ওপরে অবস্থান করছে। ঘূর্ণিঝড়টি স্থল নিম্নচাপ হিসেবে মঙ্গলবারের পর সিলেটের ওপর দিয়ে চলে যাবে এবং উজানে ভারতের আসাম ও মিজোরামে বৃষ্টি ঝরাবে।

ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে তছনছ উপকূলীয় এলাকা। ঘরবাড়ি ভেঙে বিধ্বস্ত জনপদ। ৫ থেকে ৬ ফুট জলোচ্ছ্বাসে বাঁধ ভেঙে তলিয়ে গেছে গ্রামের পর গ্রাম। গাছপালা উপড়ে পড়ে বিভিন্ন জেলায় বন্ধ হয়ে গেছে যোগাযোগ ব্যবস্থা। বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে অনেক এলাকা। উপকূলীয় ছয় জেলায় অন্তত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসব জেলা হলো: খুলনা, সাতক্ষীরা, বরিশাল, পটুয়াখালী, ভোলা ও চট্টগ্রাম।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –