• রোববার ১৬ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ২ ১৪৩১

  • || ০৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

সাহসিকতার পুরস্কারের জন্য মনোনীত ৪৩ পুলিশ সদস্য       

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ মে ২০২৩  

ঢাকার নিউ সুপার মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে সাহসী ভূমিকা পালনের জন্য মনোনীত হয়েছেন ৪৩ পুলিশ। তাদের নামের তালিকা পাঠানো হয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ সদর দপ্তরে। ডিএমপি কমিশনার পুলিশের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক খন্দকার গোলাম ফারুক নিজ কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের আর্থিকভাবে পুরস্কৃত করবেন। সেই সঙ্গে তদারকির দায়িত্বে থাকা রমনা বিভাগের উপকমিশনার মো. শহীদুলস্নাহসহ দায়িত্বশীল পুলিশ কর্মকর্তাদেরও প্রশংসাপত্র প্রদানের মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হবে।

এদিকে, পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা মনে করেন, সাহসী পুলিশ সদস্যদের পুরস্কৃত করার উদ্যোগ ভবিষ্যতে তাদের কাজে গতি বাড়াতে, সাহসী ভূমিকা পালন করতে এবং মানবিক পুলিশ হতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

গত ১৫ এপ্রিল ঢাকার নিউ সুপার মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে অন্তত আড়াইশ' দোকান পুড়ে যায়। ফায়ার সার্ভিসের ৩১টি ইউনিটের পাশাপাশি পুলিশের জলকামান, সেনা, নৌ, বিমান, বিজিবি, পুলিশ,র্ যাব, আনসার, রোভার স্কাউট ও রেড ক্রস সদস্যদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় প্রায় পৌনে চার ঘণ্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

এদিকে, সেদিন ডিএমপির রমনা বিভাগের উপকমিশনার মো. শহীদুলস্নাহর নেতৃত্বে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা নিজেরা কাঁধে করে ব্যবসায়ীদের মালামাল সরাতে থাকেন। এমনকি এক কনস্টেবলের সঙ্গে ডিসি মো. শহীদুলস্নাহকেও মালামাল ধরে সরিয়ে নিতে সহায়তা করতে দেখা যায়। সবার অজান্তে পুলিশের এমন কর্মকান্ড চোখে পড়ে সাংবাদিক, সাধারণ মানুষসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের। ক্যামেরা ও মোবাইলে ধারণ করা এসব ছবি মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

ঘটনাটি নজরে এলে ঢাকা মহানগর পুলিশ কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক নিউ মার্কেটে অগ্নিকান্ডের সময় সাহসী ও মানবিক আচরণকারী পুলিশ সদস্যদের তালিকা তৈরির নির্দেশনা জারি করেন। নির্দেশনা মোতাবেক তাদের একটি তালিকা তৈরি করা হয়। তৈরিকৃত তালিকায় ৩৬ জন পুলিশ সদস্য স্থান পেয়েছেন। এছাড়া তদারকি কর্মকর্তা হিসেবে রমনার ডিসি মো. শহীদুলস্নাহসহ অন্যান্য কর্মকর্তারাও রয়েছেন। তাদের ডিএমপি কমিশনার নিজ হাতে পুরস্কৃত করার ঘোষণা দিয়েছেন। আগামীকাল মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর পুলিশ সদর দপ্তরে আনুষ্ঠানিকভাবে ওইসব পুলিশ সদস্যদের পুরস্কৃত করার কথা রয়েছে।

\হযেসব পুলিশ সদস্য পুরস্কৃত হওয়ার জন্য মনোনীত হয়েছেন, তারা হচ্ছেন- কনস্টেবল পরান, আবেদুর রহমান, গোপাল, কাকন, শান্ত, সজিব, উজ্জল, রাকিব, খালিদ, গোলাম মোস্তফা, সজিব, অনিক বড়ুয়া, মেহেদী হাসান, এইচ এম আব্দুল কাইয়ুম, শামীম হোসেন, ইমামুস সুলতান, রাসেল আহমেদ, সাইফুল ইসলাম, নোমান, ফাহিম হোসেন, সঞ্জয় চন্দ্র বর্মণ, তুষার আর্থি, রাজু আহমেদ রাজ, শাহীন, সাকিব, মিজান, বোরহান, আকিবুল, মাসুদ রানা, আমির হোসেন, মিলন হোসেন, মামুন ও মো. হোসেনসহ ৩৬ জন।

ডিএমপি মিডিয়া বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, নিউ মার্কেটে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে সাহসিকতাপূর্ণ ও মানবিক কাজের জন্য এএসআই মুশফিক, কনস্টেবল আবেদ, বরুণ, মনির, আদনান, আজাদ ও রাসেলকে মনোনীত করা হয়েছে। তাদের নামের তালিকা পাঠানো হয়েছে ডিএমপি সদর দপ্তরে।

এ ব্যাপারে রমনা বিভাগের উপকমিশনার মো. শহীদুলস্নাহর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যাচাই বাছাই এবং সার্বিক পর্যালোচনা শেষে ৩৬ জন পুলিশ সদস্যের তালিকা পাঠানো হয়েছে ডিএমপি সদর দপ্তরে। ডিএমপি কমিশনারের নিজ হাতে ঢাকা মহানগর পুলিশ সদর দপ্তরে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এসব সাহসী পুলিশ সদস্যদের আর্থিকভাবে পুরস্কৃত করার কথা রয়েছে।

তিনি পুরস্কৃত হচ্ছেন কিনা-জানতে চাইলে এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, সেটি ডিএমপি কমিশনারের সার্বিক পর্যালোচনা ও পর্যবেক্ষণ এবং বিবেচনার বিষয়। আমি একজন পুলিশ সদস্য হিসেবে আমার প্রথম ও প্রধান কাজই হচ্ছে মানুষের পাশে দাঁড়ানো।

এ ব্যাপারে ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস বিভাগের উপকমিশনার মো. ফারুক হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, নিউ মার্কেটে অগ্নিকান্ডের সময় সাহসিকতার সঙ্গে কাজ করে এবং ছবি তুলে আলোচনায় এসেছেন ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে কর্মরত ৭ পুলিশ সদস্য। এই সাতজনকে পুরস্কারের জন্য মনোনীত করার প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে ডিএমপি সদর দপ্তরে।        

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –