• রোববার ০৩ মার্চ ২০২৪ ||

  • ফাল্গুন ১৯ ১৪৩০

  • || ২১ শা'বান ১৪৪৫

সর্বশেষ:
অগ্নিকাণ্ড কবলিত ভবনে ফায়ার এক্সিট না থাকায় প্রধানমন্ত্রীর ক্ষোভ আজ সারাদেশে ব্যাহত হবে ইন্টারনেট সেবা অমর একুশে বইমেলা শেষ হচ্ছে আজ পাগড়ি কেনার টাকা না পাওয়ায় মাদরাসাছাত্রের আত্মহত্যা দিনাজপুরে র‌্যাবের অভিযানে ফেনসিডিলসহ আটক ৩

রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সম্মাননা পেলেন ড. অরূপরতন চৌধুরী

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩  

মাদকদ্রব্য ও নেশা নিরোধ সংস্থার (মানস)  প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ড. অরূপরতন চৌধুরী রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সম্মাননা স্মারক পেয়েছেন। তামাক নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখায় এ সম্মাননা অর্জন করেন তিনি।

মঙ্গলবার রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘ধূমপান ও তামাকমুক্ত রেল পরিষেবা গড়ে তুলতে সম্মাননা পদক ২০২২  প্রদান’ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রেলপথ মন্ত্রী মো. নুরুল ইসলাম সুজনের কাছ থেকে এ সম্মাননা গ্রহণ করেন তিনি।

এ সময় রেলওয়ে তামাকমুক্ত করার উদ্যোগে অবদানের জন্য অনুষ্ঠানে রেলের আরো ৭ জনকে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সনদপত্র প্রদান করা হয়।

রেলপথ সচিব ড. মো. হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক মো. কামরুল আহসান। এছাড়া সম্মানিত আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন জাতীয় তামাক নিয়ন্ত্রণ সেল’র সমন্বয়কারী (অতিরিক্ত সচিব) হোসেন আলী খোন্দকার, ভাইটাল স্ট্রাটেজিস-বাংলাদেশের হেড অব প্রোগ্রামস্ মো. শফিকুল ইসলাম  প্রমুখ।

মন্ত্রী বলেন, যাত্রী সাধারণের সুরক্ষায় বাংলাদেশ রেলওয়ে অঙ্গীকারাবদ্ধ। আগামীতে তামাক নিয়ন্ত্রণে ‘মডেল মন্ত্রণালয়’ হবে এই মন্ত্রণালয়। এজন্য রেল সেবায় ধূমপান ও তামাক পরিহারের বিষয়টি জোরদার করতে হবে।

তিনি বলেন, মন্ত্রণালয়ের অধীনে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে যে উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে সেটা আরো বিস্তৃত করতে হবে। প্রত্যেক রেল ও স্টেশনে ধূমপান ও তামাক মাদক বিরোধী কার্যক্রম জোরদার করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, তামাক নিয়ন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী’র তামাকমুক্ত বাংলাদেশ ঘোষণা বাস্তবায়নে পরিবহন সেক্টরের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানসহ সব মন্ত্রণালয়, দফতর, বিভাগের একযোগে কাজ করা প্রয়োজন।

সভাপতির বক্তব্যে রেল সচিব বলেন, পাবলিক পরিবহনগুলোতে পরোক্ষ ধূমপানের কারণে বিপুল সংখ্যক মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। শুধুমাত্র বাংলাদেশ রেলওয়েতে বছরে ৯ কোটি মানুষ যাতায়াত করে। এই বিপুল পরিমাণ যাত্রীসাধারণের সুরক্ষায় রেল সেবায় তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের কার্যকর বাস্তবায়ন অপরিহার্য। এ বছর যারা উল্লেখযোগ্য অবদানের জন্য পুরস্কৃত হয়েছেন তাদের কর্মস্পৃহা আরো বাড়বে বলে আশাবাদী। আগামীতে পুরস্কার ও পুরস্কৃতদের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি করা হবে জানান তিনি।

ড. অরূপরতন চৌধুরী বলেন, সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে দীর্ঘ ৪০ বছর যাবৎ নিরলসভাবে ধূমপান ও মাদক বিরোধী কাজ করে চলেছি। এ সম্মাননা আমার কাজের দায়বদ্ধাতা আরো বৃদ্ধি করবে।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –