• বৃহস্পতিবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৩ ১৪২৯

  • || ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
শেখ হাসিনার আজ জন্মদিন, জীবন যেন এক ফিনিক্স পাখির গল্প আজ থেকে করোনা টিকার বিশেষ ক্যাম্পেইন রংপুরে বাসের ধাক্কায় নিথর হলেন অটোযাত্রী ক্ষেতে কাজ করার সময় বজ্রপাত, প্রাণ গেল কৃষকের পঞ্চগড়ে নৌকাডুবি, ৩ দিন বাড়ল তদন্ত প্রতিবেদন জমার মেয়াদ

`রংপুরে চারটি দৃষ্টিনন্দন প্রবেশ ফটক নির্মাণ করা হবে`   

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২  

`রংপুরে চারটি দৃষ্টিনন্দন প্রবেশ ফটক নির্মাণ করা হবে'                
রংপুর মহানগরীতে প্রবেশের মূল সড়কে চারটি দৃষ্টিনন্দন ফটক নির্মাণের কথা জানিয়েছেন সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা। এসব ফটকে রংপুরের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে তুলে ধরে দর্শনার্থীসহ আগতদের স্বাগত জানানো হবে। 

ইতোমধ্যে এসব ফটক নির্মাণের প্রাথমিক নকশা তৈরির কাজ শেষ পর্যায়ে এসেছে। চারটি ফটকে থাকবে আধুনিক স্থাপত্যের ছোঁয়া। এগুলো দৃষ্টিনন্দন হবে এবং বাংলাদেশের অন্য এলাকার মানুষদের নজর কাড়বে।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রংপুর সিটি করপোরেশন ভবনের প্রবেশ পথে নির্মিত অত্যাধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন প্রধান ফটকের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিককের তিনি একথা জানান। এরআগে ফিতা কেটে ও বেলুন উড়িয়ে নবনির্মিত ফটকের প্রবেশদ্বার উন্মুক্ত করে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন রংপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিন মিঞা, সচিব উম্মে ফাতিমা, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদ হাসান মৃধা, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) আবু তালেব সরকার, জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব হাজী আব্দুর রাজ্জাক, রসিকের কাউন্সিলর মাহাবুবার রহমান মঞ্জু, হারাধন রায়, নজরুল ইসলাম দেওয়ানী, আবুল কালাম আজাদ, হাসনা বানু, ফেরদৌসি বেগম প্রমুখ।

মেয়র মোস্তাফিজার রহমান বলেন, রংপুর পৌরসভা বিলুপ্ত হলেও কিন্তু আমরা আগের পুরাতন ফটকটি এতদিন ব্যবহার করেছি। সিটি করপোরেশন প্রতিষ্ঠার দশ বছর পর বর্তমান পর্ষদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় পুরাতন ফটক ভেঙে জরুরি ভিত্তিতে দৃষ্টিনন্দন ও আধুনিক একটি নির্মাণ করা হয়েছে। এটি নির্মাণে প্রায় ৪০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে।

রংপুর মহানগরকে আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন করার অংশ হিসেবে আগামীতে চারটি নতুন ফটক নির্মাণ করা হবে জানিয়ে মেয়র বলেন, রংপুরে প্রবেশপথ রংপুর-ঢাকা, রংপুর-কুড়িগ্রাম-লালমনিরহাট, রংপুর-বদরগঞ্জ ও রংপুর-দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের মহানগরের অংশে চারটি ফটক নির্মাণ করা হবে। এসব ফটকে ভাওয়াইয়ার প্রতিচ্ছবিসহ গরুর গাড়ি, হাড়িভাঙ্গা আম, দর্শনীয় স্থাপনা ও ঐতিহ্য তুলে ধরা হবে।

এসময় তিনি বলেন, রংপুরকে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়তে হলে অবৈধ স্থাপনা ও দখলদারদের উচ্ছেদের বিকল্প নেই। কিন্তু এখন সিটির নির্বাচন ঘনিয়ে এসেছে। এ কারণে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হচ্ছে না। তবে আজ হোক আর কাল হোক অবৈধ স্থাপনা থাকতে দেওয়া হবে না। আমি সবার সহযোগিতা ও পরামর্শে রংপুরকে একটি পরিকল্পিত আধুনিক ও পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে চাই।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –