ব্রেকিং:
পাঁচ বিভাগে পাঁচ বার্ন ইউনিট স্থাপনসহ প্রায় ৭ হাজার ৪৪৭ কোটি ৭ লাখ টাকা ব্যয় সম্বলিত ১০ প্রকল্প একনেকে অনুমোদন
  • বুধবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৮

  • || ০১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
ভারতের সঙ্গে বন্ধুত্বের বন্ধন এখন আরো শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বাল্যবিয়ে মুক্ত হলো কুড়িগ্রামের রাজারহাট এক কোটি ৬০ লাখ টাকা মূল্যের সাপের বিষ উদ্ধার ধান-চালের বাজার তদারকি জোরদারের নির্দেশ বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইউনিট পাচ্ছে ৫ মেডিকেল হাসপাতাল

নাগেশ্বরীর ইউপি নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৮ অক্টোবর ২০২১  

নির্বাচনের তপশিল ঘোষণার পর থেকে ভোটের হাওয়া বইতে শুরু করেছে নাগেশ্বরীর ১৪ ইউনিয়নে। নির্বাচনি প্রস্তুতি নিচ্ছেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। তাদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে গ্রামগঞ্জ ও পাড়া-মহল্লার বিভিন্ন অলিগলি, চায়ের দোকান।

জানা গেছে, দলীয় প্রতীকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে বিএনপির মধ্যে ধোঁয়াশা থাকলেও আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টিতে সেই দুঃশ্চিন্তা নেই। বরাবরের মতো এবারেও বড় দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও জাতীয় পার্টি দলীয় প্রতীক ও প্রার্থীর বিজয় নিশ্চিতে বেশ কিছুদিন থেকে নির্বাচনি মাঠে সতর্ক পা ফেলছে। উভয় রাজনৈতিক দলই পূর্বের ভুল শুধরে নিতে চায় এ নির্বাচনে। ইতিমধ্যে ১৬ অক্টোবর শনিবার বর্ধিত সভা করেছে উপজেলা আওয়ামী লীগ। প্রতিটি ইউনিয়নে তাদের সম্ভাব্য প্রার্থীর তালিকা বেশ দীর্ঘ। জটিলতা এড়াতে তাই তৃণমূলের রায়ে প্রার্থী বাছাইয়ে তারা ইউনিয়ন কমিটির সঙ্গে বৈঠকে বসেছে রবিবার। সোমবার পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে ১৪ ইউনিয়নে নেতাকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক চলবে। প্রয়োজনে ইউনিয়ন কমিটির গোপন ভোটে প্রতিটি ইউনিয়নে সম্ভাব্য তিন চেয়ারম্যান প্রার্থীর তালিকা প্রস্তুত করবে। পরে ১৯ অক্টোবর তা কেন্দ্রে পাঠানো হবে। সেখান থেকে একজন প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে। উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোজাম্মেল হক প্রধান জানান, কেন্দ্রীয় নির্দেশনা মেনে তৃণমূলের রায়ে ইউনিয়ন চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বাছাই করে তা কেন্দ্রে পাঠানো হবে।

জেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক সাবেক সংসদ সদস্য এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক জানান, ইতিমধ্যে দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে বৈঠক করে তিন-চারটি বাদে প্রায় সব ইউনিয়নে লাঙ্গল প্রতীকের ইউনিয়ন চেয়ারম্যান প্রার্থীর তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। বাকি ইউনিয়নগুলোতেও দ্রুত দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে। এলাকায় এলাকায় গিয়ে প্রার্থীকে পরিচয় করিয়ে দিয়ে তাদের পক্ষে দলীয় কর্মী-সমর্থকদের কাজ করতে বলা হয়েছে। তিনি জানান, অতীতের ভুল শুধরে সামনের দিকে এগুতে চায় জাতীয় পার্টি। সেই লক্ষ্যেই পথ চলছি আমরা। চলছে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে প্রচার-প্রচারণা।

এদিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে বিএনপির অংশগ্রহণ নিয়ে সংশয় থাকলেও সম্ভাব্য প্রার্থীরা বসে নেই। নিজেদের পক্ষে তারা প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। হয়ত শেষ পর্যন্ত তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারেন। উপজেলা বিএনপি সম্পাদক গোলাম মওলা আজাদ বাবলু জানান, আমরা এখনো কেন্দ্রীয় নির্দেশনার অপেক্ষায়। গত বারের মতো এবারেও নির্বাচনে থাকছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। সংগঠনটির সভাপতি গোলাম মোস্তফা মো. আনছার আলী রয়েল বলেন, আমরা ইতিমধ্যে ১৪ ইউনিয়নে আমাদের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করেছি।

এছাড়াও দলীয় প্রার্থীর বাইরে অনেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিতে নিজেদের কর্মী -সমর্থকদের নিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। সম্ভাব্য দলীয় সেই প্রার্থীসহ স্বতন্ত্র প্রার্থীদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে গ্রামগঞ্জ ও পাড়া-মহল্লার বিভিন্ন অলিগলি, চায়ের দোকান। সর্বত্রই আলোচিত হচ্ছে শেষ পর্যন্ত কে পাচ্ছেন কোন প্রতীক। উল্লেখ্য, ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে নাগেশ্বরীর ১৪ ইউনিয়নসহ ১ হাজার ৭ ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ২ নভেম্বর, বাছাই ৪ নভেম্বর ও প্রত্যাহারের শেষ সময় ১১ নভেম্বর।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –