• শনিবার   ২৫ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১২ ১৪২৯

  • || ২৪ জ্বিলকদ ১৪৪৩

সর্বশেষ:
পদ্মাসেতুর উদ্বোধন বাংলাদেশের গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহাসিক দিন- প্রধানমন্ত্রী কিছুক্ষণ পরই স্বপ্ন ছোঁয়ার মাহেন্দ্রক্ষণ ঢাক-ঢোল পিটিয়ে সভাস্থলে আসছেন মানুষ পদ্মাসেতু মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর সাহস এনে দিয়েছে: রাষ্ট্রপতি পদ্মাসেতু নির্মাণে সেনাবাহিনী পদ্মাসেতু উদ্বোধন উপলক্ষ্যে বাংলাদেশকে ভারতের অভিনন্দন

কর্মক্ষেত্রে অবদানের জন্য টানা চতুর্থবার পদক পাচ্ছেন এসপি আরিফ

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩ জানুয়ারি ২০২০  

সন্ত্রাস, জঙ্গি দমন ও নাশকতার বিরুদ্ধে বলিষ্ঠ ভূমিকা এবং কর্মক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য পরপর তিন বার বিপিএম এবং পিপিএম পেয়েছেন বগুড়ার এসপি মো.আরিফুর রহমান মন্ডল। 

চতুর্থবারের জন্য তিনি আবারো মনোনীত হয়েছেন। একটানা চার বছর প্রধানমন্ত্রীর নিকট থেকে সম্মানজনক বিপিএম এবং পিপিএম পদক পেলেন। 

তার এ অর্জন বাংলাদেশ পুলিশে বিরল। এর আগে কোনো পুলিশ কর্মকর্তা এ ধরণের রাষ্ট্রীয় সম্মানসূচক পদক পর পর চার বছরে কেউ পাননি। সেক্ষেত্রে তিনি তার দক্ষতা, সততা ও একনিষ্ঠতার মাধ্যমে জঙ্গি ও সন্ত্রাস দমনে সারাদেশ চষে বেড়ানোর কারণে এ সম্মানসূচক পদক পেয়েছেন। 

২০১৬ সালে বিপিএম, ২০১৭ সালে বিপিএম, ২০১৮ সালে পিপিএম এবং ২০১৯ সালে পুনরায় পিপিএম পদক অর্জন করেছেন। ২০১৯ সালে পিপিএম পদক রোববার রাজারবাগ পুলিশ লাইনে প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে গ্রহণ করবেন।

তিনি  ২০০৬ সালে ২৫তম বিসিএস পুলিশ হিসেবে যোগদান করেন। প্রথম ৬ মাস ঠাকুরগাঁও জেলায় এএসপি (প্রবেশনারী) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। 

এরপর তিনি বগুড়া জেলার এসএসপি হেডকোয়ার্টার হিসেবে যোগদান করেন এবং একই জেলায় এএসপি এ সার্কেল সফলতার সঙ্গে অস্ত্র উদ্ধার, সন্ত্রাস ও নাশকতা দমনে ব্যাপক ভূমিকা রাখেন। এরপর তিনি এপিবিএন এ সংযুক্ত থেকে পূর্বতিমুর ও সুদান শান্তি মিশনে বাংলাদেশ পুলিশের প্রতিনিধি হিসেবে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখেন। এরপর মিশন শেষে তিনি বগুড়া জেলায় এএসপি (ডিএসবিতে) যোগদান করেন এবং সবশেষ এএসপি (পূর্ব) হিসেবে কর্মরত থাকা অবস্থায় ২০১৮ সালে এসপি হিসেবে পদোন্নতি প্রাপ্ত হন।

তিনি এক ছেলে ও এক মেয়ে সন্তানের জনক। তার স্ত্রী নাইয়ার সুলতানা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে নওগাঁ সদর উপজেলায় কর্মরত আছেন। তিনি গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলার চকচকিয়া গ্রামের মৃত নুরুল ইসলাম মন্ডলের ছোট ছেলে। 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –