ব্রেকিং:
বাংলাদেশে পৌঁছেছে ভারতের উপহারের ২০ লাখ ডোজ করোনা টিকা ‘কোভিশিল্ড’। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার কিছু আগে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে এয়ার ইন্ডিয়ার বিশেষ ফ্লাইটটি। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার এ টিকা বাংলাদেশকে উপহার হিসেবে দিলো ভারত সরকার।
  • বৃহস্পতিবার   ২১ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৮ ১৪২৭

  • || ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
দেশে করোনার টিকাদান শুরু হবে ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৯ লাখ পরিবারকে বাড়ি দিচ্ছে সরকার ঠাকুরগাঁওয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে পলিথিনে ঢাকা বীজতলা ৪’শ কোটি টাকায় প্রতিবন্ধীদের জন্য ক্রীড়া কমপ্লেক্স করবে সরকার বিনাশুল্কে বাংলাদেশি ৮২৫৬ পণ্য যাচ্ছে চীনের বাজারে

হাবিপ্রবির ফজিলাতুন্নেছা হলের ডিজিটালাইজেশন কার্যক্রমের উদ্বোধন 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১১ জানুয়ারি ২০২১  

হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের নিজস্ব ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করা হয়েছে। আজ সকাল সাড়ে ১১ টায় অনলাইনে যুক্ত হয়ে “Hall Managemnent System” ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উক্ত হলের হল সুপার সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ আবু সাঈদ। 

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ট্রেজারার প্রফেসর ড.বিধান চন্দ্র হালদার, রেজিস্ট্রার প্রফেসর ডাঃ মোঃ ফজলুল হক, জনসংযোগ ও প্রকাশনা শাখার পরিচালক প্রফেসর ড. শ্রীপতি সিকদার, ছাত্র পরামর্শ ও নিদের্শনা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর ড. মোঃ ইমরান পারভেজ, আইভি রহমান হলের হল সুপার প্রফেসর রোজিনা ইয়াসমিন লাকি, সুফিয়া কামাল হলের হল সুপার প্রফেসর ড. এএসএম কিবরিয়া, সহকারি প্রক্টর এবং ছাত্র পরামর্শ ও নিদের্শনা বিভাগের সহকারি পরিচালক, সহকারি হল সুপার, বিভিন্ন শাখার কর্মকর্তাবৃন্দ,বাংলাদেশ ছাত্রলীগ হাবিপ্রবি শাখার নেতৃবৃন্দ,ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের ছাত্রী প্রতিনিধিবৃন্দসহ অন্যান্যরা । 

এ সময় ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মু. আবুল কাসেম বলেন, জাতির জনকের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে প্রতিটি সেক্টরে দ্রæতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। পিছিয়ে নেই আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ও, এই ডিজিটালাইজেশনের মাধ্যমে হাবিপ্রবি আরও একধাপ এগিয়ে গেল। আশা করি আস্তে আস্তে সকল হল ডিজিটালাইজেশন করা হবে । 

 সভাপতির বক্তব্যে হল সুপার ড. মোঃ আবু সাঈদ বলেন, এই ওয়েবসাইটে হলে অবস্থানরত প্রত্যেক ছাত্রীর নিজস্ব প্রোফাইল থাকবে। নতুন কে হলে উঠলো এবং কে হল ছেড়ে গেলো সেই হালনাগাদ তথ্য থাকবে। পাশাপাশি এর মাধ্যমে যেকোন অভিযোগ বা পরামর্শও প্রদান করা যাবে। এখনো এর উন্নয়ন কাজ চলমান, সবার সহযোগিতা নিয়ে আমরা একটি গুছানো ওয়েবসাইট উপহার দিতে পারবো। 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –