ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরো দুই হাজার ৩৮১ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৪৯ হাজার ৫৩৪ জনে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে মারা গেছেন আরো ২২ জন। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৬৭২ জন। সোমবার দুপুর আড়াইটায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইনে দৈনন্দিন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ছয়জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দুইজন স্বাস্থ্যকর্মী, তিনজন গার্মেন্টসকর্মী ও একজন মাওলানা।
  • মঙ্গলবার   ০২ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
করোনাকালে অর্থনীতিতে স্বস্তি দিচ্ছে প্রবাসীদের আয় জুন মাস পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব ফি মওকুফের সিদ্ধান্ত বন্ধই থাকছে উবার-পাঠাওসহ সব রাইড শেয়ারিং ভারত সীমান্তের অংশ নিজেদের দাবি করে নেপালের পার্লামেন্টে বিল পেশ খেলাধুলার পাশাপাশি ফলাফলেও এগিয়ে বিকেএসপির ক্যাডেটরা
১৯

স্বাস্থ্যখাতে ২ লাখ ১৪ হাজার কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন         

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২০ মে ২০২০  

স্বাস্থ্যখাতে গত বছরের চেয়ে ৬ শতাংশ বরাদ্দ বাড়িয়ে আগামী অর্থবছরে ২ লাখ ১৪ হাজার কোটি টাকার বেশি বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি-এডিপি অনুমোদন করেছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদ-এনইসি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।

 
পরে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, করোনা মহামারি মোকাবিলায় স্বাস্থ্য ও কৃষি খাতের প্রকল্পগুলো দ্রুত অনুমোদনের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রথমবারের মতো জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের সভায় ভিডিও কনফারেন্সিংয়ে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কয়েকবছর ধরে চলা রীতি অনুযায়ী এবারও উন্নয়ন কর্মসূচিতে বরাদ্দ বেশি পরিবহন খাতে, ৫২ হাজার কোটি টাকারও বেশি। বৈঠকের পরে খাতওয়ারি বরাদ্দ তুলে ধরে পরিকল্পনমন্ত্রী।

করোনা মোকাবিলায় এবার স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে ৬ শতাংশের বেশি। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে এই বরাদ্দ কতটা ঠিক, এমন প্রশ্ন করলে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, প্রকল্প প্রণয়ন ও বাস্তবায়নে স্বাস্থ্যখাতের কিছুটা ঘাটতি রয়েছে।

চলমান অর্থবছরের চাইতে ১২ শতাংশের বেশি বরাদ্দ পেয়েছে বিদ্যুৎ খাত। তবে অলস পড়ে থাকা বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বিষয়ে জানতে চাইলে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, আগামির বরাদ্দ মূলত পুরনো কিছু বিদ্যুৎ কেন্দ্র মেরামত ও সঞ্চালন লাইন শক্তিশালী করার জন্য।

স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানসহ বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে আগামি অর্থ বছরের জন্য সবমিলিয়ে প্রকল্প নেয়া হয়েছে ১ হাজার ৬৭৩টি। আর উন্নয়ন কর্মসূচির ২ লাখ ৫ হাজার ১৪৫ কোটি টাকার মধ্যে বৈদেশিক উৎস থেকে সাড়ে ৭০ হাজার কোটি টাকা পাওয়ার আশা করছে সরকার।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –
স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর