ব্রেকিং:
বিএনপি থেকে গণ পদত্যাগের আল্টিমেটাম দিয়েছে পীরগাছার নেতা-কর্মীরা কুড়িগ্রামে সৈয়দ শামসুল হকের ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকী পালিত নীলফামারীতে ৩ লাখ শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল দিনাজপুরে ফেন্সিডিলসহ ৪ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ভারতের সাবেক মন্ত্রী ও বিজেপি নেতা যশবন্ত সিং মারা গেছেন। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে রোববার সকাল ৭টার দিকে দিল্লির আর্মি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন সাবেক এই সেনা কর্মকর্তা।
  • রোববার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১২ ১৪২৭

  • || ০৯ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
ভ্যাকসিন উৎপাদনের সক্ষমতা বাংলাদেশের রয়েছে- প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশকে ২০ কোটি ডলার ঋণ অনুমোদন দিয়েছে বিশ্বব্যাংক নীলফামারীতে ইউপি চেয়ারম্যানকে হত্যার হুমকির অভিযোগ প্রধানমন্ত্রীর প্রতিটা মুহূর্তই ইতিহাসের অংশ- পলক ‘সার্কভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতা শক্তিশালী করতে হবে’
১৯৭

লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সাংগঠনিক তৎপরতা শূন্যের কোঠায় 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২ আগস্ট ২০২০  

অভ্যন্তরীণ কোন্দল আর একক নেতৃত্বের কারণে লালমনিরহাট জেলা বিএনপির সাংগঠনিক তৎপরতা আজ শূন্যের কোঠায়। অভিযোগ উঠেছে, জেলা বিএনপির সভাপতি অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু ও সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান বাবলার দ্বন্দ্বে হতাশাগ্রস্ত হয়ে দিন দিন নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়ছেন তৃণমূলের শতশত নেতাকর্মী। 


জানা গেছে, জেলা বিএনপির সভাপতি বছরের বেশিরভাগ সময় ঢাকায় অবস্থান করেন। কদাচিৎ বাড়িতে ফিরলেও পরিবারিক কাজ মিটিয়ে ও মনপুত কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে তৃণমূলের খোঁজ-খবর না নিয়েই যথারীতি ঢাকায় ফিরে যান তিনি। 

এদিকে, জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এলাকায় থাকলেও প্রকাশ্যে আসেন না। এর মূল কারণ হলো বাবলা ও দুলুর দ্বন্দ্ব। আর এ দ্বন্দ্বের বলি হচ্ছেন তৃণমূলের শতশত নেতাকর্মী।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক তৃণমূল নেতা বলেন, অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে সদ্য প্রয়াত জেলা বিএনপির সিনিয়র নেতা (হারাটি ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান) মোহাম্মদ আলী খাঁন, সাপ্টিবাড়ির আব্দুল মান্নান (হুরকা মান্নান), সোহরাব হোসেন, দুর্গাপুরের সাবেক চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ফিরোজুর রহমান নান্নুসহ ফ্রন্টলাইনের নেতারা দল ছেড়ে চলে গেছেন। তাদের মতামতের কোনো মূল্য দেয়া হয় না। যে কারণে তারা দল ছেড়ে অন্য দলে যোগ দিচ্ছেন।

তারা আরো বলেন, নির্বাচনের আগ মুহূর্তে কারাগারে যাওয়ার পর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তো দূরের কথা, বিএনপির কোনো নেতাই তৃণমূল নেতাকর্মীদের খোঁজখবর নেন না।

কণ্ঠে হতাশার সুর নিয়ে তারা আরো বলেন, লালমনিরহাট জেলা বিএনপিকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে এসব আত্মকেন্দ্রিক নেতাকর্মীদের ব্যাপারে উদাসীন এবং পদলোভী নেতাদের পরিবর্তনের বিকল্প নেই। অন্যথায় নিঃশেষ হতে চলা স্থানীয় বিএনপির অস্তিত্ব সামনের দিনগুলোতে হাতড়িয়েও খুঁজে পাওয়া যাবে না।

স্থানীয় বিএনপির দুর্বলতা, বিভিন্ন অভিযোগসহ নানা বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা বিএনপি সভাপতি অধ্যক্ষ আসাদুল হাবিব দুলু বলেন, কেন্দ্র থেকে নির্দেশ না পাওয়ায় জেলা উপজেলা কমিটি গঠনের জন্য কোনো নির্দেশনা বা সম্মলনের বিষয়ে পরামর্শ দিতে পারছেন না। কমিটি হলে সমস্যাগুলো শিগগিরই সমাধান হবে।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –
লালমনিরহাট বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর