ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরো দুই হাজার ৩৮১ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে ৪৯ হাজার ৫৩৪ জনে দাঁড়িয়েছে। একই সময়ে মারা গেছেন আরো ২২ জন। এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৬৭২ জন। সোমবার দুপুর আড়াইটায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইনে দৈনন্দিন স্বাস্থ্য বুলেটিনে এ তথ্য জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা। গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ছয়জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দুইজন স্বাস্থ্যকর্মী, তিনজন গার্মেন্টসকর্মী ও একজন মাওলানা।
  • মঙ্গলবার   ০২ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৮ ১৪২৭

  • || ১০ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
করোনাকালে অর্থনীতিতে স্বস্তি দিচ্ছে প্রবাসীদের আয় জুন মাস পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিলের বিলম্ব ফি মওকুফের সিদ্ধান্ত বন্ধই থাকছে উবার-পাঠাওসহ সব রাইড শেয়ারিং ভারত সীমান্তের অংশ নিজেদের দাবি করে নেপালের পার্লামেন্টে বিল পেশ খেলাধুলার পাশাপাশি ফলাফলেও এগিয়ে বিকেএসপির ক্যাডেটরা
১২

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে ইউ’র প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান       

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২২ মে ২০২০  

রোহিঙ্গাদের আশ্রয়ের বোঝা কমাতে ইউরোপ অথবা অন্য কোনো তৃতীয় দেশে সরিয়ে নেয়ার মাধ্যমে সংকট সমাধানে শরিক হওয়ার জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইউ) দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার দায়িত্ব বাংলাদেশের একার নয়।
ইউ’র ১০টি দেশের মিশন প্রধানদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দিয়ে এ আহ্বান জানান তিনি। ঢাকায় ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ড, নরওয়ে, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত ও ঢাকায় ইউ প্রতিনিধি বুধবার এ ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নেন। বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে কক্সবাজার জেলায় আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ। মিয়ানমারে সামরিক অভিযানের পরে বাধ্য হয়ে ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট থেকে তারা এখানে পালিয়ে আসতে শুরু করে। এই ঘটনাকে মানবাধিকার গ্রুপগুলো ‘গণহত্যা’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তিন বছর পার হয়ে গেছে। মিয়ানমার তাদের ফিরিয়ে নিতে সম্মত হলেও এখন পর্যন্ত একজন রোহিঙ্গাও তাদের দেশে ফিরতে পারেনি।

এ সময় মন্ত্রী রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনের জন্য আরো চাপ প্রয়োগে ইউ রাষ্ট্রদূতদের প্রতি অনুরোধ জানান।

বৈঠকে আবদুল মোমেন বলেন, মাদক, নারী ও শিশু পাচার বন্ধ, আইন শৃঙ্খলা ভঙ্গে লোকদের উস্কানি দেয়া বন্ধের পাশাপাশি পর্ণোগ্রাফি বন্ধসহ রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকার নিরাপত্তার স্বার্থে ৪জি ইন্টারনেট সেবা বাতিল করা হয়েছে।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –
জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর