• রোববার   ০৭ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ২৩ ১৪২৭

  • || ২৩ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
আজ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর কর্মসূচি ঘোষণা আওয়ামী লীগের নতুন রূপে সাজছে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের স্থান ৭ মার্চ উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর উক্তি ও ছবি সম্বলিত ই-পোস্টার প্রকাশ ভাসানচরে রোহিঙ্গারা নিরাপদে আছেন: বিশেষজ্ঞরা

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর ঘর উপহার পাচ্ছে নীলফামারীর ৬৩৭ পরিবার

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২১ জানুয়ারি ২০২১  

মুজিববর্ষ উপলক্ষে আগামী ২৩ জানুয়ারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘর উপহার পাচ্ছেন নীলফামারীর ৬৩৭ গৃহহীন পরিবার। এসব ঘর হস্তান্তরের সকল প্রস্তুতি ইতিমধ্যে সমাপ্ত হয়েছে বলে আজ বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারী/২০২১) দুপুরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। 

এতে জানানো হয়, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় আশ্রয়ণ প্রকল্প ২-এর আওতায় “মুজিববর্ষে বাংলাদেশে কেউ গৃহহীন থাকবে না” বাস্তবায়িত কর্মসূচিতে দেশের সকল ভূমিহীন ও গৃহহীন “ক” শ্রেনীর মানুষের বাসস্থান নিশ্চিত কল্পে ২ শতাংশ খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদান পূর্বক পুনর্বাসনের লক্ষ্যে সারা দেশে প্রথম পর্যায়ে ৬৬ হাজার ১৮৯টি গৃহ নির্মাণের জন্য অর্থ বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে। গত বছরের ডিসেম্বরে এই প্যাকেজে নীলফামারী জেলায় ১১ কোটি ১৪ লাখ ৭৫ হাজার টাকা ব্যয়ে নীলফামারী জেলার ৬ উপজেলায় ৬৩৭ টি ঘর নির্মাণ কাজ শুরু হয়। এর মধ্যে জেলা সদরে ৯৯টি, সৈয়দপুর উপজেলায় ৩৪টি, ডোমার উপজেলায় ৩৮টি, ডিমলা উপজেলায় ১৮৫টি, জলঢাকা উপজেলায় ১৪১টি ও কিশোরগঞ্জ উপজেলায় ১৪০টি ঘরের নির্মাণ কাজ সমাপ্তি হয়েছে। 

প্রতিটি ৩৯৪ বর্গফুট আয়তনের দুই কক্ষবিশিষ্ট একেকটি সেমিপাকা ঘরে একটি টয়লেট, একটি রান্নার কক্ষ, ইউটিলিটি স্পেস ও বারান্দা রয়েছে। এছাড়া ঘরগুলোতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে এবং পানি সরবরাহের জন্য জেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের (ডিপিএইচই) ব্যবস্থাপনায় প্রতি ১০টি পরিবারের জন্য একটি করে সাবমার্সিবল পাম্প স্থাপন করা হয়। প্রতিটি ঘরের নির্মাণ ব্যয় পরিবহন খরচ সহ ১ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প প্রেরিত লে-আউট অনুযায়ী ঘরগুলো নির্মাণ করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী জানান, আগামী ২৩ জানুয়ারী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নীলফামারী জেলার ঘর গুলো হস্তান্তর করবেন সুবিধাভোগীর মাঝে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের নিজপাড়া গ্রাম প্রান্তে সাথে গণভবন হতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সংযুক্ত হবেন। তিনি এ ব্যাপারে আরো জানান, নানা ধরনের জরিপের মাধ্যমে নীলফামারী জেলায় ঘর পাবার যোগ্য ১১ হাজার ২৮৫ পরিবারকে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত করা হয়। এর মধ্যে প্রথম ধাপে যাদের জমি ও ঘর কোনটাই নেই তাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পুনর্বাসন করা হচ্ছে। বাকিদেরও আগামী  মাসের পর থেকে পর্যায়ক্রমে প্রকল্পের আওতায় আনা হবে। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খন্দকার নাহিদ হাসান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মীর্জা মুরাদ হাসান বেগ, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলিনা আকতার, রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর বেলায়েত হোসেন, নেজারত ডেপুটি কালেক্টর জাহাঙ্গীর হোসাইন প্রমুখ। 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –