ব্রেকিং:
দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৮ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৩৬১ জনে। শনিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।
  • শনিবার   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১১ ১৪২৭

  • || ০৮ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
লালমনিরহাটে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম শুরু বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে এসেছে জাতিসংঘের সদস্যপদ- প্রধানমন্ত্রী বিদেশে বিনিয়োগের সুযোগ পাচ্ছেন রপ্তানিকারকরা দিনাজপুরে আরো ১৮ জন করোনায় আক্রান্ত রংপুরে মৃদুলের বাড়িটি এখন ‘মাছের বাড়ি’
২৯০

বিপাকে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ সেপ্টেম্বর ২০২০  

মামলা সংক্রান্ত জটিলতা আর অসুস্থতা নিয়ে বিপাকে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। এ অবস্থায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে পাঠাতে চান দলটির সিনিয়র নেতা-কর্মীরা। সে অনুযায়ী তার বিদেশে চিকিৎসার অনুমোদন নিতে সরকারের দ্বারস্থ হয়েছেন পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু এ বিষয়ে উদাসীন ছেলে তারেক রহমান।

খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা কিংবা বিদেশযাত্রা নিয়ে শুরু থেকেই নীরব ভূমিকা পালন করছেন তিনি। আর তার এই নীরবতায় দলের মধ্যে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

দলীয় সূত্র থেকে জানা গেছে, দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ সিনিয়র নেতারা খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা ও বিদেশযাত্রা নিয়ে নানা সময়ে আলোচনা করলেও এই ইস্যুতে একদমই নীরব তারেক রহমান। বিএনপির নীতিনির্ধারক ও বুদ্ধিজীবীরা খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসার কথা বললেও এ ব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেনি তারেক রহমান। 

দলের অভ্যন্তরে গুঞ্জন রয়েছে, খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা নিয়ে সিরিয়াস নন তারেক রহমান। সম্ভবত নেতৃত্বের প্রসঙ্গে খালেদা জিয়াকে কথা বলতে দিতে চান না তিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির নীতিনির্ধারক পর্যায়ের এক নেতা বলেন, রাজনৈতিক কৌশল হিসেবে তারেক রহমান চান না খালেদা জিয়া বিদেশে চলে যাক।

তিনি বলেন, তারেক রহমানের ধারণা, খালেদা জিয়া বাংলাদেশ থেকে বিদেশে চলে গেলে তার অনুপস্থিতিতে বিএনপিতে নেতৃত্বের সংকট দেখা দেবে। বাংলাদেশে বিএনপি কার্যত অভিভাবকহীন হয়ে পড়বে। যার কারণেই দেশের হাসপাতলেই খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা করতে চান তারেক।

তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়া দেশ ছাড়লে বিএনপিতে ভাঙন ধরবে, সুযোগসন্ধানীরা বিএনপিকে জাতীয় পার্টির মতো নানা উপদল তৈরি করবে। যার কারণেই মূলত কৌশলগত কারণেই খালেদা জিয়াকে দেশে রাখতে চান তারেক।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক একাধিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবীরা বলেন, খালেদাকে দেশে রেখে চিকিৎসা করানো তারেক রহমানের একটি রাজনৈতিক কৌশল। 

তারা বলেন, তারেক রহমান যেহেতু নিজে দেশে আসতে পারছেন না। তাই খালেদার রাজনীতিকে বলি দিয়ে আবার তাকেই ব্যবহার করেই রাজনৈতিকভাবে ফায়দা লুটছেন তিনি। 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –
রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর