ব্রেকিং:
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৯১ জনের মৃত্যু হয়েছে, শনাক্ত হয়েছে ৪ হাজার ৫৫৯ জন
  • বুধবার   ২১ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৭ ১৪২৮

  • || ০৭ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
বিএনপির আমলের ৯০ টাকার সার এখন ১২ টাকা- প্রধানমন্ত্রী ‘খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে কৃষকদের সব ধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে’ স্বাস্থ্যবিধি মানাতে রংপুর জেলা প্রশাসনের মোবাইল কোর্ট ডোমারে ঝুপড়ির আগুনে পুড়ে ভিক্ষুকের মৃত্যু আজ সপ্তম দিনের মতো সারাদেশে চলছে সর্বাত্মক লকডাউন

দীঘির ছবির ট্রেলার দেখে দর্শক হতাশ 

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৭ মার্চ ২০২১  

নতুন একটি ছবি নির্মাণ করতে যাচ্ছি। ছবিটির নাম ‘তুমি আছো তুমি নেই’। রোমান্টিক গল্পের ছবি এটি। আমার ক্যারিয়ারের যতগুলো সিনেমা বানিয়েছি তার মধ্যে এটি সবচেয়ে ভালো ও ব্যবসাসফল ছবি হবে বলে আমি মনে করি। আর হতে পারে এটিই আমার শেষ সিনেমা।

‘তুমি আছো তুমি নেই’ ছবিটির শুরুর আগে গণমাধ্যমে এমন বক্তব্যই দিয়েছিলেন ঢাকার সিনেমার নামকরা পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু।  অথচ ছবিটির মুক্তি উপলক্ষে সম্প্রতি পোস্টার ও ট্রেলার প্রকাশের পর পরিচালকের কথা-কাজে মিল পাওয়া গেলো না।

আগামী ১২ মার্চ মুক্তি পাচ্ছে ‘তুমি আছো তুমি নেই’। জাজ মাল্টিমিডিয়ার ইউটিউব চ্যানেলে ট্রেলার প্রকাশের ২৩ ঘন্টার মধ্যে কমেন্টবক্সে তেমন কোনো ইতিবাচক কমেন্ট আসেনি। সেখানে দর্শকরা পরিচালকের সমালোচনায় মুখর।

এক ব্যক্তি কমেন্ট করেছেন, তোমাদের লজ্জা থাকা দরকার। এইসব বস্তাপঁচা মুভি বানিয়ে ইন্ডাস্ট্রিকে ধংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছো।

আরেকজন লিখেছেন, এইটা কোনো মুভির ট্রেলার! মাননীয় পরিচালক আমার এমবি ফেরত চাই।

একজন লিখেছেন, ৯০ দশকের যাত্রাপালা এর থেকেও বেটার ছিল। ধিক্কার জানাই তাদের যারা বাংলা চলচিত্রকে ধ্বংস করে দিচ্ছে।

ছবিটি নিয়ে সবচেয়ে হতাশ করেছেন দীঘিও। শিশুশিল্পী হিসেবে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা দীঘিকে নিয়ে যতটা আশা করা হয়েছিল ট্রেলার দেখে ততটাই দীঘির ওপর হতাশ হয়েছেন দর্শক।

ঢাকার সিনেমার নামকরা পরিচালক দেলোয়ার জাহান ঝন্টু। একথা নিঃসন্দেহে সত্য অনেক হিট ও ব্যবসা সফল ছবির নির্মাতা তিনি। এই ঝন্টু নির্মাণ করেছেন ‘তুমি আছো তুমি নেই’, যেখানে প্রথমবার নায়িকা হয়ে আসছেন দীঘি। ছবিটি নিয়ে তাই সবার প্রত্যাশা একটু বেশিই ছিল।

ট্রেলার দেখার পর পরিচালককে নিয়ে অনেকে মন্তব্য করেছেন, সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে অনেক ভালো ছবি উপহার দিয়েছেন ঝন্টু সাহেব। এবার তার অবসর নেয়া উচিত। আর দীঘির বেলায় বলছেন, দীঘি এমন একটি ছবিতে কিভাবে অভিনয় করল?

শুরুতে ছবিটর নায়ক নির্বাচন নিয়ে জলঘোলা কম হয়নি। প্রথম বাপ্পি ছবিটি থেকে সরে গেলে নায়ক হিসেবে আসেন সায়মন। তিনিও ছবিটি করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন। ফলে বাপ্পি ও সায়মনকে পরিচালক ও ছবিটির প্রযোজক ঝন্টু ও সিমির অনেক গালমন্দ শুনতে হয়েছে। পরে ছবিটির নায়ক হিসেবে নেয়া হয় আসিফ ইমরোজকে।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –