ব্রেকিং:
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৫ হাজার ৭৪৭ জনে। দিনাজপুরে গত ২৪ ঘণ্টায় ১১ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৫৫৭ জনে। বৃহস্পতিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।
  • শুক্রবার   ২৩ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৭ ১৪২৭

  • || ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সর্বশেষ:
করোনার মধ্যেও বাংলাদেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হয়নি: তোফায়েল আহমেদ সংঘর্ষ এড়াতে ঠাকুরগাঁওয়ে দুর্গা মন্দিরে ১৪৪ ধারা জারি স্বজনপ্রীতি, কমিটি বাণিজ্য, দলীয় কোন্দলই বিএনপি’র ব্যর্থতার কারণ এইচএসসির ফরম পূরণের ‘কিছু টাকা’ ফেরত পাবেন শিক্ষার্থীরা নতুন গ্যাসক্ষেত্র অনুসন্ধানে ৪৬১ কোটি টাকার ৭টি প্রস্তাব অনুমোদন

তিস্তার পানি বিপদ সীমার ওপরে, পানিবন্দি তিস্তা পাড়ের হাজারো মানুষ

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২০ জুন ২০২০  

ভারী বর্ষণ ও ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদ সীমার ২০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে তিস্তা পাড়ের হাজারো মানুষ।

শনিবার সকালে দেশের বৃহত্তম সেচপ্রকল্প তিস্তা ব্যারেজ ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানিপ্রবাহ রেকর্ড করা হয় ৫২ দশমিক ৮০ সেন্টিমিটার। যা (স্বাভাবিক ৫২ দশমিক ৬০ মিটার) বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

হাতীবান্ধার উপজেলার তিস্তা নদীর তীরবর্তী এলাকার সাবেক জনপ্রতিনিধি জাকির হোসেন জানান, তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে ওই ইউপির বেশ কিছু এলাকায় নদীর পানি ঢুকে পড়েছে। ওই সব এলাকার অনেক বসত বাড়িতে পানি উঠেছে। এতে লোকজন পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। 

তিস্তা ব্যারাজ দোয়ানী-ডালিয়া’র পানি উন্নয়ন বোর্ডের এক কর্মকর্তা তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও কয়েক দিন ধরে ভারী বর্ষণের কারণে তিস্তা নদীর পানি বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। 

শনিবার সকালে তিস্তা ব্যারেজ এলাকায় বিপদসীমার ২০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হতে থাকে। এতে তিস্তা তীরবর্তী কিছু বসত বাড়িতে পানি উঠেছে।

– লালমনিরহাট বার্তা নিউজ ডেস্ক –